জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অন-ক্যাম্পাস এলআইএস শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো বরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান।

0

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অন-ক্যাম্পাস এলআইএস শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো বরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান

তকাল ২৯/১১/২০১৮ তারিখ রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০:৩০ মিনিটে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট হলে অনুষ্ঠিত হয় অন-ক্যাম্পাস পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরি এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স প্রোগ্রামের শিক্ষার্থীদের বরণ, বিদায় ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ মশিউর রহমান বলেন, “শিক্ষার্থী ছাড়া ক্যাম্পাস প্রাণ লাভ করে না। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এখন শত শত শিক্ষার্থীর পদচারণা। বর্তমান আর্থ-সামাজিক অবস্থার কথা বিবেচনায় নিয়েই মাননীয় উপাচার্য গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে এমএএস ও পিজিডি প্রোগ্রাম চালু করেন। নানা সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্যবিজ্ঞানী সৃষ্টির এ ধারা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে বলে আমি মনে করি।”

 

২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষে মাস্টার্স (নিয়মিত ও প্রাইভেট) প্রোগ্রামে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক অনলাইন রেজিস্ট্রেশন কার্ড প্রদান সম্পর্কিত জরুরি বিজ্ঞপ্তি।

 

সম্মানিত অতিথি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তাঁর দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যে বলেন, “আজকের দিনে তথ্য সাড়া বিশ্বকে শাসন করছে। যোগ্য তথ্য বিজ্ঞানী ছাড়া পৃথিবী থেমে যাবে। তোমরা যোগ্য তথ্য বিজ্ঞানী হয়ে গড়ে উঠবে এটাই প্রত্যাশা।”

সভাপতির বক্তব্যে স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুলের ডিন ও প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. মোঃ নাসির উদ্দিন বলেন, “শিক্ষার গুণগত মান বজায় রেখে লাইব্রেরি এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স এগিয়ে যাচ্ছে। দক্ষ মানব সম্পদ গড়তে আমরা গড়ে তুলছি সময়োপযোগী তথ্য বিজ্ঞানী।”

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কারিকুলাম উন্নয়ন ও মূল্যায়ন কেন্দ্রের ডিন ড. মোহাম্মদ বিন কাশেম ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোল্লা মাহফুজ আল-হোসেন। অনুষ্ঠানে মেধাবীদের পুরস্কৃত করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষ থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অন-ক্যাম্পাস পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরি এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স প্রোগ্রাম চালু হয়। ইতোমধ্যে দু’টি ব্যাচ সফলভাবে তাদের কোর্স সম্পন্ন করেছে।

অনুষ্ঠান শেষে বিভাগের নিজস্ব শিল্পীদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।