১৩টি শতবর্ষী কলেজকে সেন্টার অব এক্সিলেন্স হিসেবে গড়ে তোলা হবে -শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।

Centennial Colleges will be developed as a Center of Excellence - Education Minister Dr. Dipu Moni MP

0

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে এর অধিভুক্ত ১৩ টি সরকারি শতবর্ষী কলেজের শিক্ষার উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে এক কর্মশালার আয়োজন।

Centennial Colleges will be developed as a Center of Excellence - Education Minister Dr. Dipu Moni MP
১৩টি শতবর্ষী কলেজকে সেন্টার অব এক্সিলেন্স হিসেবে গড়ে তোলা হবে -শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।

কলেজসমূহের র‌্যাংকিংয়ে তিন বার শীর্ষস্থান অধিকারী রাজশাহী কলেজের অডিটরিয়ামে আজ সোমবার সকাল ১০টায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে এর অধিভুক্ত ১৩ টি সরকারি শতবর্ষী কলেজের শিক্ষার উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে এক কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে এই কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি বলেন, “১৩টি শতবর্ষী কলেজকে ‘সেন্টার অব এক্সিলেন্স’ হিসেবে গড়ে তোলা হবে। দেশের ঐতিহ্যবাহী এই কলেজগুলোর উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুরূপ ভূমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে। সেসব সুযোগের সৎ ব্যবহার করে শিক্ষার মানোন্নয়নের বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন রয়েছে।”

সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার মানোন্নয়ন আমাদের প্রধান লক্ষ্য। তবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ২২৬০ টি কলেজকে রাতারাতি একই মানে নিয়ে আসা সম্ভব নয়। তাই দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থিত ১৩ টি শতবর্ষী সরকারি কলেজকে ১টি নেটওয়ার্কের আওতায় নিয়ে এসে এসব কলেজের শিক্ষার মানোন্নয়নে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই কলেজগুলোকে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে উন্নীত করা গেলে দেশের উচ্চ শিক্ষার উৎকর্ষ সাধনে তা বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।’

অনুষ্ঠানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু, প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান, মাউশির মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, কলেজ পরিদর্শক ও ১৩টি শতবর্ষী কলেজের অধ্যক্ষসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আরও বিজ্ঞপ্তি সমূহঃ