জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জাহানারা ইমাম স্মৃতিপদক লাভ

0

তারিখ: ২৬-৬-২০১৬

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জাহানারা ইমাম স্মৃতিপদক লাভ

আজ ২৬.৬.১৬ তারিখ ৪টায় WVA অডিটারিয়ামে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ২২তম মৃত্যু-বাষির্কী উপলক্ষে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কর্তৃক এক স্মরণ সভা বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে জনাব মফিদুল হক ‘বাংলাদেশের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি ও পাকিস্তান’ শীর্ষক জাহানারা ইমাম স্বারক বক্তৃতা প্রদান করেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে সাংবাদিক কামাল লোহানী, শাহরিয়ার কবির, শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. হারুন-অর-রশিদ বক্তব্য রাখেন। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে “জাহানারা ইমাম স্মৃতি পদক” প্রদান করা হয়। প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে উপাচার্য ড. হারুন-অর-রশিদ বলেন, “এ পদক প্রাপ্তি আমাদের জন্য আনন্দের ও আমাদের কাজের স্বীকৃতি। আমরা  স্নাতক (পাস) ও অনার্স পর্যায়ে কলা, বিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান, বাণিজ্য নির্বিশেষে সব শিক্ষার্থীদের জন্য ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস’ শিরোনামে একটি ১০০ নম্বরের কোর্স অবশ্য পাঠ্য করাসহ আরো কিছু পদক্ষেপ নিয়েছি। এ পদক প্রাপ্তি আমাদের দায়িত্ব আরো বাড়িয়ে দিল। আমরা একটি যুদ্ধের মধ্যে আছি, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার অনুষ্ঠান হলেই এ যুদ্ধ শেষ হয়ে যাবে না। বাংলাদেশে সকল নাগরিক বিশেষ করে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্ত্বা সাম্প্রদায়িতকতা সম্পূর্ণ নির্মূল এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ সমাজ-রাষ্ট্রীয় জীবনে প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত এ যুদ্ধ চলবে।”

ডাউনলোড করুন (Download)

 

বার্তা প্রেরক

 
(মোঃ ফয়জুল করিম)
পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত)
জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দফতর
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

For security, use of Google's reCAPTCHA service is required which is subject to the Google Privacy Policy and Terms of Use.

I agree to these terms.